বৃহস্পতিবার   ০৬ মে ২০২১   বৈশাখ ২৩ ১৪২৮   ২৪ রমজান ১৪৪২

প্রবাস খবর
সর্বশেষ:
আপনি কি আপনার প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে লিখতে চান? লেখা [email protected] এ পাঠাতে পারেন।
৯২৯

‘কে হবে মাসুদ রানা’র অডিশনে তরুণদের হেনস্থা, ফেসবুকে ক্ষোভ

শোবিজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট ২০১৯  

বাংলাদেশের জনপ্রিয় স্পাই থ্রিলার মাসুদ রানার কাহিনী নিয়ে ফের সিনেমা থৈরি হতে যাচ্ছে এই খবর পুরনো। কাজী আনোয়ার হোসেন ওরফে কাজীদা লিখিত পাঠকধন্য এই সিরিয়ালের ধ্বংসপাহাড় এপিসোডটি নিয়ে নির্মিতব্য এই সিনেমার নাম ভূমিকায় অর্থাৎ মাসুদ রানা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নায়ক খোঁজার রিয়েলিটি শো শুরু হয়েছে এটাও পুরনো খবর। তবে রিয়েলিটি শো’র বাছাই কার্যক্রম নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। ‘কে হবে মাসুদ রানা’ নামের ওই  অনুষ্ঠানের একাধিক ক্লিপ এখন ভাইরাল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। যেখানে দেখা যায় অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে অশালীন তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করা হচ্ছে, বিটকেলে অঙ্গভঙ্গি করছেন ‘বিচারক’ বা বাছাইকারীরা। তাদের অশোভন দৃষ্টিকটু অঙ্গভঙ্গি আর শ্রবণকটু কথাবার্তা নিয়ে ব্যাপক সমালোলোচনা হচ্ছে।  

বিষয়টি নিয়ে খোদ ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের (ডিএমপি) এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার স্ট্যাটাসেও ক্ষোভ ঝড়ে পড়েছে।  তিনি ওই অনুষ্ঠানের একটি ভিডিও ক্লিপ ফেসবুকে শেয়ার করে লিখেছেন, “অনেক সভ্যতা, ভব্যতা শিখলাম তাদের (বিচারকদের) কাছে! আয়োজক কর্তৃপক্ষ এমনটাই তাঁদের কাছে চেয়েছেন কিনা জানি না, তবে সেসবও যে কৌশলে প্রতিপালন করা যায় তা তারা জানেন বলে মনে হয় না! প্রতিযোগীদের মানুষ মনে করেন নাই মনে হয়! খুব বেশি 'এমটিভি রোডিস' দেখেন মনে হয় আমাদের তাহারা!”

‘কে হবে মাসুদ রানা’ অনুষ্ঠান নিয়ে তেমনি আরেকজন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আলোচিত অনুষ্ঠান কে হবে মাসুদ রানা? আমি এটি নিয়ে কিছু বলতে চাই না শুধু এটা বলতে চাই এখানে যারা বিচারক আসলে তাদের বিচারক হওয়ার কোন যোগ্যতা সত্যি আছে কি?’ ইশতিয়াক ফারহান নামের ওই ফেসবুক ব্যবহারকারী আরো লিখেছেন, ‘এতো বাজে ব্যাবহার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের সাথে!’

কামরুল হাসান নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘মাসুদ রানা খোঁজার নামে কিছু ছেলেকে অপমান করা হচ্ছে... অডিশনে বিচার করতে কে কে আসছে যদি একটু দেখতেন। তাদের নিজেদেরই নাই কোন বডি ফিটনেস, কথা বলার স্টাইল, তারা নাকি খুঁজে বের করবে মাসুদ রানা?’

মনজুরুল হাসান রাজীব আরো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিচারকদের সরাসরি ‘অপদার্থ’ বলে। তিনি লিখেছেন, ‘বিচারক নামক এক একটা অপদার্থ। সবাই যে যোগ্য যাবে তা তো না। মানুষকে ডেকে এভাবে অপমান করার মানে কি? তাদেরকে এই অধিকার আর সাহস কে দিয়েছে? তাছাড়া এমন হলে কোনদিনই কোন আত্নসম্মানবোধওয়ালা ছেলে-মেয়ে এ ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে যাবে না।’

জুয়েল রানা নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘তারা মাসুদ রানা চরিত্রের অডিশন দিতে আসা প্রার্থীকে গান গাওয়াচ্ছে! মাথায় চুল কালার করায় মজা নিচ্ছে অথচ ফাহমির নিজের চুলেরই বেহাল দশা। মার্জিত আচরণ করতে জানে এদের বানায় বিচারক। 
প্রবাসখবর.কম/ডিএসএন

প্রবাস খবর
এই বিভাগের আরো খবর