শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২   আষাঢ় ১৭ ১৪২৯   ০২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

প্রবাস খবর
সর্বশেষ:
আপনি কি আপনার প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে লিখতে চান? লেখা [email protected] এ পাঠাতে পারেন।
৩২

ইতালিতে ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণের প্রস্তাব ইইউর

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০২২  

ইইউর অধিকাংশ দেশে জাতীয় ন্যূনতম মজুরি আইনের মাধ্যমে নির্ধারিত থাকলেও ইতালিতে এখনো তা নির্দিষ্ট হয়নি। 
যদিও ইতালিতে ন্যূনতম মজুরির বিধান নেই। এতে স্থানীয় ইতালীয় শ্রমিকদের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশিসহ বিদেশি লাখ লাখ শ্রমিক। এবার এর পরিবর্তন চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।
ইতালীতে শুধু একটি সমন্বিত জাতীয় চুক্তির মাধ্যমে যুগ যুগ ধরে দেশটির মালিক ও শ্রমিকদের কাজের শর্তাবলী পরিচালিত হচ্ছে। চলতি সপ্তাহে ইতালির ন্যূনতম মজুরি বিষয়ে কঠোর সমালোচনা করেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতারা। ইইউর করা এ বিষয়ের ওপর এক রিপোর্টে দেখা যায়, অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ইতালিতে কর্মরত লাখ লাখ ইতালীয় এবং বিশেষ করে বিদেশি শ্রমিকরা। দেশটিতে প্রায় লক্ষাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিক কর্মরত।
গত সোমবার (৭ জুন) ইইউর শ্রমিকদের সচ্ছল জীবনযাত্রার মান নিশ্চিত করার জন্য ইইউ একটি ন্যূনতম মজুরি নির্দেশনা চূড়ান্ত করেছে। ইইউর ২৭ সদস্যের মধ্যে ছয়টি দেশ ইতালি, অষ্ট্রিয়া, সাইপ্রাস, ডেনমার্ক, সুইডেন ও ফিনল্যান্ড এ চুক্তিতে এখনো স্বাক্ষর করেনি। এতে দেশগুলোর শ্রমিকদের জীবনযাপনে অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা লঙ্ঘিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান ইইউর শ্রম কমিশনার নিকোলাস স্মিত। ইইউর ন্যূনতম মজুরি চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছেন ইইউর প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেন।
জানা যায়, ইতালির লাখ লাখ শ্রমিক ঘণ্টায় নয় ইউরোর কমে কাজ করেন, যা ইইউর অন্যান্য দেশের শ্রমিকদের তুলনায় অনেক কম। এ জন্য গত কয়েক বছরে ইতালির শ্রমিকদের আয় কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে ইতালীয় জোট সরকারের প্রধান শরিক ফাইভ স্টার দল ও বেশ কয়েকজন মন্ত্রী আলাদা আলাদা বিবৃতির মাধ্যমে চুক্তির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হলে ইতালিতে কর্মরত শ্রমিকদের বেতনের পর ঘাটতির অর্থ ইইউর আইনে সরকার শ্রমিকদের পরিবারকে সহযোগিতা হিসেবে দিতে হবে। তাই ইতালীয় সরকার তাতে স্বাক্ষর করছেন না বলে জানান ইতালীয় শ্রমিক নেতারা। এতে বিশেষ করে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন প্রবাসী শ্রমিকরা।

প্রবাসখবর.কম/বি
 

প্রবাস খবর
এই বিভাগের আরো খবর